অতিপ্রয়োজনীয় সামগ্রী: বান্দরবানের ট্যুরিস্ট স্পটগুলোতে আর্মি ও বিজিবির অনুমতি নিয়ে প্রবেশ করতে হয়। তাই এন আই ডি কার্ড বা স্টুডেন্ট কার্ডের ৫টি ফটোকপি নিতে হবে। পিছনে বেল্ট আর তলায় গ্রীপ যুক্ত প্লাস্টিকের স্যান্ডেল অবশ্যই নিতে হবে।
  • Overview
  • Trip Outline
  • Trip Includes
  • Trip Excludes
  • Reviews
  • Booking
  • FAQ

বান্দরবান। এক অপার প্রাকৃতিক সৌন্দ্যয্যের নাম। গহীন পাহার আর বনভূমির মাঝে লুকিয়ে থাকা ঝড়ণা, জলপ্রপাত আর পাহাড়ী নদী ঠিক যেন ঘোমটায় মুখ ঢাকা প্রেয়সি। পাহাড় গা বেয়ে চলা আঁকাবাঁকা পথে পলকে পলকে সৌন্দয্য আর মুগ্ধতা, অসাধারণ ল্যান্ডস্ক্যাপ ভিউ। এই চড়াই তো এই উৎড়াই। একই পথে আপনি কখোন সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে ২৫ শত ফিট উচ্চতায় মুহেূর্তেই আবার উচ্চতা কমে ৫ শত ফুট। আবার চড়াই আবার উৎড়াই। পথের দুধারে পাহাড়ের পাদদেশে হাজার ফুট নিচে আদিবাসি পল্লিগুলো যেন ঘাস ফড়িং এর ঝাক, যেন তারা এ পৃথিবির বাইরে। সকাল সাঝে পাহারের চূড়ায় বা পাহারী পথে যখন বাহাড়ি মেঘের ভেলা দেখবেন আপনার শত শত ফুট নিচে তখন আপনার মনে হবে যেন চিরচেনা পৃথিবী ছাড়িয়ে অণ্য কোথাও আছেন। পাহাড়ি পাথুরে সাঙ্গু নদীতে বেটরাইড আপনাকে দিবে অণ্যরকম এক এডভেঞ্চার। ভ্রমন পিপাসুরা বলে থাকেন “ যে সাঙ্গু নদী দেখেনি সে কল্পনাও করতে পারবেনা যে একটি নদী কতটা সুন্দর হতে পারে”। আর ঝড়ণা বা জলপ্রপাতে পৌছতে অগভীর ঝিরিপথ ধরে মাইলকে মাইল ট্রাকিং এর সৌন্দয্য আপনি কোনদিনও ভুলতে পারবেন না। গ্যারান্টি।

ট্যুরের প্রধান দর্শনীয় স্পট

  • মেঘলা পর্যটন কমপেস্নক্স- শহর থেকে দূরত্ব ৪.৫ কি.মি.
  • নীলাচল- শহর থেকে দূরত্ব ৮ কি.মি.
  • শৈল-প্রপাত- শহর থেকে দূরত্ব ৮ কি.মি.
  • চিম্বুক পাহাড়- শহর থেকে দূরত্ব ২৬ কি.মি.। সমুদ্র পৃষ্ঠ হতে এর উচ্চতা ২ হাজার ৫ শত ফুট। বাংলাদেশের ৩য় উচ্চতম চূড়া।
  • মিলন ছরি ঝড়না- চিম্বুক পাহাড় থেকে ৪.৫ কি.মি
  • প্রান্তিক লেক- শহর থেকে দূরত্ব ১৪ কি.মি.
  • নীলগিরি- শহর থেকে দূরত্ব ৪৭ কি.মি.। সমুদ্র পৃষ্ঠ হতে এর উচ্চতা ২ হাজার ২ শত ফুট।
  • সাংগু নদীতে বোট রাইড- থানচি থেকে তিন্দু হয়ে রোমাক্রি পর্যন্ত পাথুরে পাহাড়ি নদী সাংগুতে প্রায় ৫ ঘন্টার বোটরাইড।
  • ট্রাকিং করে নাফাখুম ঝড়না- রোমাক্রি থেকে রোমাক্রি খাল/ ঝিড়ি পথ ধরে প্রায় ২ ঘন্টার ট্রেকিং

Itineraries

১ম দিন

মেঘলা, নীলাচল,প্রান্তিক লেক ও শহর ঘুরেদেখা।

২য় দিন

শৈলপ্রপাত, চিম্বুক পাহাড়, মিলনছড়ি ঝড়না।

৩য় দিন

নীলগিরি হয়ে থানচী ও আশপাশের এলাকা।

৪ র্থ দিন

সাংগু নদীতে বোট রাইড করে থানচি থেকে তিন্দু হয়ে রোমাক্রি, রোমাক্রি থেকে ট্রেকিং করে নাফাখুম ঝড়না।

প্যাকেজের আওতায় যা থাকবে

  • ঢাকা টু বান্দরবান টু ঢাক বাস ভাড়া
  • মাঝারি মানের হোটেলে ৩ রাত থাকা। প্রতি রুম ২/৪ জন শেয়ার
  • মাঝারি মানের ৩ বেলা খারার
  • সাইট ভিজিটের যাতায়াত খরচ
  • প্ররেশ টিকিট/ ফি

প্যাকেজের আওতায় যা থাকবে না

  • সাইট ভিজিটে প্রয়োজনীয় শুকনা খাবার ও পানি
  • ক্যাবেল কার বা কোন রাইডে চড়ার ফি
  • স্পেশাল ফ্যামিলি রুমের প্রয়োজন হলে এক্সট্রা ভাড়া দিতে হতে পারে

There are no reviews yet.

Be the first to review “প্রকৃতির রাজকণ্যা বান্দরবান অল ইন অন ট্যুর। ৪ দিন ৩ রাত”

  • Start
    End
    Group (Min-Max)
    Pax
    Price
     
  • Start
    End
    Group (Min-Max) 1 - 14 Pax
    Price 6,500.00 /Person

No Details Found